সর্বশেষ :

উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ময়মনসিংহ সিটি’র প্রথম নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক ০৪:১৫, ৫ মে ২০১৯

উৎসবমুখর পরিবেশে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ হওয়ায় পুরুষ ভোটারের চেয়ে নারী ভোটারদের আগ্রহ একটু বেশিই লক্ষ্য করা গেছে। ভোট প্রদানে একটু সময় বেশি লাগলেও স্বাচ্ছন্দে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিতে দেখা গেছে ভোটারদের। দুপুর পর্যন্ত ৩৩টি ওয়ার্ডের কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
এর আগে সকাল ৮টার আগে থেকেই নারী ভোটাররা ভোট দিতে কেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষা করেন। নগরীর মহাখালী স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা এক নারী জানান, শুধু ইভিএমে ভোট দিতেই লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। আগের পদ্ধতিতে ভোট হলে কেন্দ্রে আসতেন না।


নগরীর ময়মনসিংহ কলেজ ভোটকেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, পুরুষ ভোটারদের লম্বা লাইন। ভোটাররা দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিচ্ছেন। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়েও সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন সাধারণ ভোটাররা।
এই কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা হীরা মিয়া বলেন, আগে আমরা ভোট দিয়েছি ব্যালট পেপারে। এখন ডিজিটাল যুগ। ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিয়ে খুব ভালো লাগছে।
তবে অনেক কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, ইভিএমে আঙুলের ছাপ সাপোর্ট না করায় বার বার চেষ্টা করেও অনেকে ভোট দিতে না পেরে ফিরে গেছেন।
রিটার্নিং অফিসার ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান জানান, দুপুর পর্যন্ত কোনো কেন্দ্রে অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ১০ জন আনসার সদস্য ও তিনজন করে পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। পাশাপাশি ২২ প্লাটুন বিজিবি, র্যাবের ৩৩টি মোবাইল টিম (প্রতি ওয়ার্ডে একটি করে), পুলিশের ৩৩টি মোবাইল টিম (প্রতি ওয়ার্ডে একটি করে) ও ১১টি স্ট্রাইকিং দল মাঠে রয়েছে।
এছাড়াও প্রতিটি ওয়ার্ডে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও তিনজন অতিরিক্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। ৩৩টি ওয়ার্ডে ১২৭টি ভোটকেন্দ্রে ৮৩০টি বুথে ইভিএম প্রদ্ধতিতে ২ লাখ ৯৬ হাজার ৯৩৮ জন ভোটার ভোট প্রদান করছেন।
নির্বাচনে ৩৩টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৪২ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৭০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মেয়র পদে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হন।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ