খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধের দাবিতে মানববন্ধন

নিউজবক্স ডেক্স ০১:২১, ২৩ মে ২০১৯

খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে প্রজন্ম সমাজকল্যাণ সংস্থা নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। বুধবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের হাজারো সমস্যার মধ্যে অন্যতম প্রধান সমস্যা হচ্ছে খাদ্যে ভেজাল। বর্তমানে খাদ্যে ভেজাল আমাদের জাতীয় জীবনে এক মহাদুর্যোগের নাম। মানুষের সুস্বাস্থ্য এবং বেঁচে থাকার জন্য পুষ্টিকর খাবার অতি জরুরি। কিন্তু আমরা খাদ্যের নামে কী গ্রহণ করছি?
বক্তারা বলেন, এই প্রশ্ন থেকেই প্রজন্ম সমাজকল্যাণ সংস্থার নেতৃবৃন্দ সিদ্ধান্ত নেন জীবন সংহারকারী খাদ্যে ভেজাল বাংলার মাটি থেকে দূর করতেই হবে।
মানববন্ধনে বক্তারা আরও বলেন, খাদ্যে ভেজাল দমনে ২০১৩ সালে নিরাপদ খাদ্য আইন প্রণয়ন করা হয়। যেখানে খাদ্যে ভেজাল করলে শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে মাত্র ৫ বছর। ফলে এই আইনে খাদ্যে ভেজালের মতো গুরুতর অপরাধ দমন সম্ভব না।
মানববন্ধন থেকে দাবি জানিয়ে তারা বলেন, খাদ্যে ভেজাল দমনে ২০১৩ সালের নিরাপদ খাদ্য আইন পরিবর্তন করে সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডের বিধান করা হোক অথবা ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে খাদ্যে ভেজালের প্রকারভেদ সুর্নিদিষ্ট করে প্রয়োগ করা হোক। সংগঠনের সভাপতি অ্যাডভোকেট রেজাউল আলম নোমান মানববন্ধনে বলেন, যতদিন পর্যন্ত সরকার ২০১৩ সালের নিরাপদ খাদ্য আইন পরিবর্তন করে সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডের বিধান না করবেন ততোদিন পর্যন্ত আমরা আমাদের সংগ্রাম চালিয়ে যাব।
ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাবেক ট্রেজারার অ্যাডভোকেট খন্দকার গোলাম কিবরিয়া জোবায়ের বলেন, খাদ্যে ভেজালের বিরুদ্ধে আমাদের সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।
ঢাকা বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি এবং বাংলাদেশ বার কাউন্সিলরের লিগ্যাল এডুকেশন কমিটির সভাপতি কাজী নাজিবুল্লাহ হিরু বলেন, খাদ্যে ভেজালের বিরুদ্ধে আইনজীবীসহ সব পেশাজীবীদের ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।
একইসঙ্গে তিনি দেশের সব আইনজীবীদের খাদ্যে ভেজালকারীর পক্ষে কোনো আইনি সহায়তা না দেয়ার আহ্বান জানান।
অ্যাডভোকেট ওয়ায়েজ আহমেদ কায়েশের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট ফকরুল হাসান, অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন বিশ্বাস, ঢাকা আইনজীবী সমিতির বর্তমান কার্যকরী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান খান (রচি)।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ