সর্বশেষ :

গত ৫বছরে মোদির অস্থাবর সম্পত্তি বেড়েছে ১১৪.৫ শতাংশ

অনলাইনডেক্স ০৮:৪৭, ২৭ এপ্রিল ২০১৯

এবারের নির্বাচনে উত্তর প্রদেশের বারাণসী লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন নরেন্দ্র মোদি। শরিক দলের নেতাদের সাথে নিয়েই শুক্রবার বারাণসীতে জেলা কালেক্টরেট অফিসে গিয়ে মনোনয়ন জমা দেন তিনি। স্থাবর ও অস্থাবর মিলিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মোট সম্পদের পরিমাণ ২.৫১ কোটি রুপি। এর মধ্যে রয়েছে গান্ধীনগরে নিজের বাড়ি, ১.২৭ কোটি রুপির ফিক্সড ডিপোজিট।নির্বাচন কমিশনে পেশ করা হলফনামা অনুযায়ী এসব তথ্য জানা গেছে।
হলফনামায় যশোদাবেন-কে নিজের স্ত্রী হিসাবে পরিচয় দিয়েছেন মোদি। নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসাবে এম.এ. পাশ। ১৯৮৩ সালে গুজরাট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি স্নাতক হন। ১৯৭৮ সালে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এ. পাশ করেন। মোট সম্পত্তির পরিমাণ ২.৫১ কোটি রুপি। এর মধ্যে অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ১,৪১,৩৬,১১৯ কোটি রুপি। এর মধ্যে রয়েছে ‘স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া’ (এসবিআই)-এ জমাকৃত স্থায়ী আমানতের পরিমাণ ১,২৭,৮১,৫৭৪ কোটি রুপি, সেভিংস অ্যাকাউন্টে রয়েছে ৪১৪৩ রুপি, হাতে নগদ অর্থের পরিমাণ ৩৮,৭৫০ রুপি এবং বন্ড, বিমা, সোনার রিং মিলিয়ে আরও কয়েক লাখ রুপি।
গত পাঁচ বছরে মোদির অস্থাবর সম্পত্তি বেড়েছে ১১৪.৫ শতাংশ। ২০১৪ সালের প্রথম লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার সময় মোদির অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ছিল ৬৫,৯১,৫৮২ লাখ রুপি। স্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ১.১ কোটি রুপি। যার মধ্যে রয়েছে গুজরাটের গান্ধীনগরে সেক্টর-১ এ ৩৫৩১ বর্গ ফুটের ওপর নিজের বাড়ি।
মোদির প্রাথমিক আয়ের উৎস হিসাবে দেখানো হয়েছে, সরকারি বেতন ও জমানো রুপি থেকে প্রাপ্ত সুদের অর্থ। তবে স্ত্রী যশোদাবেনের আয়ের উৎস বা তার জীবিকা সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না বলে উল্লেখ করেছেন ওই হলফনামায়।
আগামী ১৯ মে শেষ পর্বে এই বারাণসী লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচন। গণনা আগামী ২৩ মে।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ