ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ২৬৩ কোটি ৫ লাখ টাকার আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে-কৃষিমন্ত্রী

নিউজবক্স ডেক্স ১২:১৭, ১২ নভেম্বর ২০১৯

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ২৬৩ কোটি ৫ লাখ টাকার আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।
তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে প্রাপ্ত ভথ্য মোতাবেক ক্ষতিগ্রস্ত জমির পরিমাণ ৪২২ হাজার ৮৩৬ হেক্টর (মোট আক্রান্ত জমির ৮%)। ক্ষতিগ্রস্ত ফসলের পরিমাণ ৭২ হাজার ২১২ মে. টন। আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ও ২৬৩ কোটি ৫ লাখ টাকা। মোট ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের সংখ্যা ৫০ হাজার ৫০৩ জন।
মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) বেলা ১১টায় কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ফসলের ক্ষয়ক্ষতি বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা জানান।
তিনি বলেন, গত ৮ থেকে ১০ নভেম্বর ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ দেশের উপকূলীয় দক্ষিণাঞ্চলের জেলা সমূহের উপর আঘাত হেনেছে। ঝড়ের আঘাতের ফলে উপকূলীয় ও পার্শ্ববর্তী ১৬টি জেলার ১০৩টি উপজেলায় এ ঝড়ের প্রভাব পড়েছে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে প্রাথমিক ভাবে ১৬টি জেলায় রোপা আমন, শীতকালীন শাক সবজি, সরিষা, খেসারি, মসুর ও পান ফসল আক্রান্তের তথ্য পাওয়া গেছে।
প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে ফসলের ক্ষয়ক্ষতির বিবরণ দিয়ে তিনি জানান, বুলবুলের প্রভাবে আক্রান্ত জেলাগগুলো হলো- খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, নড়াইল, বরিশাল, ভালো, পটুয়াখালী, বরগুনা, পিরাজপুর, ঝালকাঠি, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, শরীয়তপুর, নোয়াখালী, ফেনী ও লক্ষীপুর। ঘূর্ণিঝড়ে রোপা আমন, শীতকালীন সবজি, সরিষা, খেসারি, মসুর ও পান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আক্রান্ত ফসল সমূহের আবাদকৃত জমির পরিমাণ ও ২০ লাখ ৮৩ হাজার ৮ শত ৬৮ হেক্টর। আক্রান্ত ফসলি জমির পরিমাণ ২ লাখ ৮৯ হাজার ০০৬ হেক্টর (মোট আবাদকৃত জমির ১৪%)।
তিনি জানান, রোপা আমন ২ লাখ ৩৩ হাজার ৫ শত ৭৪ হেক্টর, শীতকালীন সবজি ৪১৬ হাজার ৮৮৪ হেক্টর সরিষা, এক হাজার ৪৭৬ হেক্টর ৩১ হাজার ৮৮ হেক্টর, মসুর ১৯৫ হেক্টর, পান ২ হাজার ৬৬৩ হেক্টর ও অন্যান্য ৩ হাজার ১২৬ হেক্টর।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ