সর্বশেষ :

পলান সরকারের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া

নাটোর প্রতিনিধি ১০:০০, ৪ মার্চ ২০১৯

প্রায় ১৩ হাজার ক্ষুদে শিক্ষার্থী ও  সাড়ে তিনশ শিক্ষকের অংশ গ্রহনে পলান সরকারের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় বিশেষ দোয়া ।

গত ১ মার্চ পরোলোকে চলে যাওয়া আলোর ফেরিওয়ালা পলান সরকারের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় রবিবার নাটোরের ৫৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়।

আলোর ফেরিওয়ালা খ্যাত পলান সরকার বাগাতিপাড়া উপজেলার নূরপুর মালঞ্জি গ্রামে ১৯২১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। নূরপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তিনি চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা করেন। পরে মায়ের সঙ্গে নানার বাড়ি রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার বাউসা গ্রামে চলে যান। সেখানে নিজের টাকায় বই কিনে তিনি মানুষকে পড়তে সহায়তা করে জ্ঞানের বিস্তার ঘটাতেন। টানা ৩০ বছর ধরে নিজের টাকায় বই কিনে গ্রামে গ্রামে ঘুরে সবার হাতে বই পৌঁছে দিয়েছেন। সামাজিকভাবে অবদান রাখতে ২০১১ সালে তিনি পেয়েছেন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ সম্মান একুশে পদক।
বাগাতিপাড়া উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফাইজুল ইসলাম বলেন, রবিবার সকালে উপজেলার ৫৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু হওয়ার পর দুপুরের কিছু আগে থেকে শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয় চত্বরে জমায়েত করা হয়। এরপর পলান সরকারের স্মরণে স্কুলে স্কুলে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসব কর্মসূচির মধ্যে মূল আকর্ষণ ছিল পলান সরকারের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার হাতে-খড়ি নেওয়া স্কুল বাগাতিপাড়া উপজেলার নূরপুর মালঞ্চি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদা সুলতানা বলেন,  ২০২১ সালে স্কুলের শতবর্ষ অনুষ্ঠানে পলান সরকারকে প্রধান অতিথি হিসেবে রেখে তাকে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সম্মাননা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তার আগেই তিনি চলে গেলেন।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ