পাকিস্তানের পুলিশ বাহিনীর ইতিহাসে প্রথম এক হিন্দু নারীর যোগদান

অনলাইনডেক্স ১০:১৯, ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

পাকিস্তানের পুলিশ বাহিনীতে এক হিন্দু নারী যোগ দিয়েছেন যা সে দেশের ইতিহাসে প্রথম। পুষ্পা কোহলি নামের ওই হিন্দু নারী সিন্ধু প্রদেশের পুলিশ বিভাগে সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হিসেবে যোগ দিয়েছেন।

কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত-পাকিস্তানের সম্পর্কে যখন টানাপড়েন চলছে তখন কোহলির এ যোগদানের খবরে সামাজিক মাধ্যমে সাড়া পড়ে যায়।

গালফ ও জিও নিউজ জানিয়েছে, কয়েকশ’ প্রতিযোগির সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে এএসআই হিসেবে নিয়োগ লাভ করেছেন কোহলি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার এই যোগদানের খবর ভাইরাল হয়ে যায়। টুইটারে প্রথম এখবর শেয়ার করেন সিন্ধুর এক সমাজকর্মী। কপিল দেব নামের ওই সমাজকর্মী মঙ্গলবার রাতে টুইটারে পুষ্পা কোহলির ছবি দিয়ে লিখেছেন, প্রথম হিন্দু নারী যিনি প্রাদেশিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সিন্ধু প্রদেশে এএসআই পদে নিযুক্ত হয়েছেন।

হামিদ খটক নামের অপর একজন কোহলিকে অভিনন্দন জানিয়ে আরো এগিয়ে যাওয়ার জন্য বলেছেন।

উল্লেখ্য, এর আগে এ বছরের জানুয়ারিতে পাকিস্তানে সুমন পবন বোড়ানি নামের অপর এক হিন্দু নারী বিচারক পদে নিয়োগ লাভ করেন। সে সময় বোড়ানি বলেছিলেন, সিন্ধুর এক অনুন্নত প্রত্যন্ত এলাকায় তিনি বেড়ে উঠেছেন যেখানে দরিদ্ররা নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে উঠে আসছে।

পাকিস্তানের সরকারি হিসেব অনুযায়ী সে দেশে প্রায় ৭৫ লাখ হিন্দু বসবাস করেন। এদের বেশিরভাগ অংশের বসবাস সিন্ধু প্রদেশে। নিজস্ব সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ধরে রেখে সেখানে মুসলমানদের সঙ্গে চমৎকার সহাবস্থান করছেন তারা।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ