সর্বশেষ :

বিজিএমইএ ভবন সিলগালা

নিউজবক্সবিডি, ঢাকা ০১:৪১, ১৭ এপ্রিল ২০১৯

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটারদিকে ভবনটি সিলগালা করে দেয় রাজউক। এ সময় রাজউকের পরিচালক (প্রশাসন) খন্দকার অলিউর রহমান বলেন, ‘আজকে আমরা ভবন সিলগালা করলাম। আমাদের আজকের কার্যক্রম স্থগিত। ভবনের অধিকাংশ মালামাল অপসারণ করা হয়েছে। যে মালামালগুলো রয়ে গেছে তা সরিয়ে নিতে রাজউকের কাছে আবেদন করা যাবে। রাজউক অনুমতি দিলে তারা সেগুলো অপসরণ করতে পারবে। তবে অনুমতি ছাড়া কেউ ভবনে প্রবেশ করতে পারবে না।’

রাজধানীর হাতিরঝিল লেকের পাড়ে অবৈধভাবে নির্মাণ করা বিজিএমইএ ভবন অপসারণের কাজ শুরু করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এরই অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর ভবনটির গ্যাস ও পানির সরবরাহ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধের কথা থাকলেও রাত নয়টার দিকে বিজিএমইএ ভবনে আলো জ্বলতে দেখা যায়।
রাজউকের পরিচালক (প্রশাসন) খন্দকার অলিউর রহমান বলেন, ভবনের গ্যাস ও পানির লাইন কেটে দেয়া হয়েছে।

ভবন ভাঙার কাজ শুরু করার আগে গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি, টেলিফোনসহ সব ইউটিলিটি সার্ভিসের সংযোগ বিচ্ছিন্ন কর হবে বলে অলিউর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন।
মঙ্গলবার সকালে ১৬ তলা ভবনটি ভাঙতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল সদস্য নিয়ে ভবনটির সামনে অবস্থান নেয় রাজউক কর্মকর্তারা। পরে ভবনে যেসব প্রতিষ্ঠান আছে তারা সরঞ্জাম সরাতে সময় চাইলে প্রথমে তাদের দুই ঘণ্টা সময় দেয়া হয়। এই সময়ের মধ্যে মালামাল সরাতে ব্যর্থ হলে পরে আরও এক ঘণ্টা সময় বাড়ানো হয়। দ্বিতীয় দফাতেও মালামাল পুরোপুরি না সরায় বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত সময় দেয়া হয়। এর পর সেটা বাড়িয়ে সন্ধা সাতটা করা হয়।
বিজিএমইএ ভবন অপসারণের জন্য গত বছরের ২ এপ্রিল ১ বছর ১০ দিন সময় দিয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। যার সময় শেষ হয়েছে গত ১২ এপ্রিল।
ঢাকার উত্তরায় নিজস্ব ভবন তৈরি করছে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ)। গত সপ্তাহে তা উদ্বোধন করা হয়।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ