সর্বশেষ :

রাজধানীতে এসি সার্কুলার বাস সার্ভিস চালু

নিউজবক্সবিডি ডেক্স ০৯:৪৮, ২৮ মার্চ ২০১৯

রাজধানীর ধানমণ্ডি-নিউমার্কেট-আজিমপুর রুটে চক্রাকার শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) বাস (সার্কুলার বাস সার্ভিস) চালু করা হয়েছে। গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনতে ও নাগরিকদের যানজটমুক্ত ঢাকা উপহার দিতে এই বিশেষ বাস সার্ভিস চালু করা হয়েছে। একইসঙ্গে এই রুটে পর্যায়ক্রমে সকল বেসরকারী কোম্পানির বাস মালিকদের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে তুলে নেয়া হবে।

বুধবার সকালে রাজধানীর কলাবাগান মাঠের পাশে অস্থায়ী মঞ্চে চক্রাকার বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করা হয়। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন এর শুভ উদ্বোধন করেন। একইসঙ্গে নিরাপদ ঢাকার নিশ্চয়তা দিতে চক্রাকার বাস সার্ভিসের মাধ্যমে নাগরিকরা সর্বনিম্ন মূল্যে সর্বোচ্চ সেবা প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন সাঈদ খোকন। অপরদিকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যেই রাজধানীর গণপরিবহনে দৃশ্যমান শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আসাদুজ্জামান মিয়া।

উদ্বোধনকালে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম, ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া, বিআরটিসি চেয়ারম্যান মোঃ ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া, বিআরটিএ চেয়ারম্যান মশিয়ার রহমানসহ বিভিন্ন সংস্থার উর্ধতন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।
উদ্বোধনকালে মেয়র বলেন, বিআরটিসি, ডিএমপি এবং আমরা যৌথভাবে কাজ করছি। আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোগের পাশাপাশি জনগণকে সচেতন হবে। আমরা জনগণের সচেতনতা এবং প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোগের সমন্বয়ের মধ্য দিয়ে একটি নিরাপদ ঢাকা নিশ্চিত করতে চাই। এই চক্রাকার বাস সার্ভিস সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে। মেয়র বলেন, আমার ধারণা এবং বাস্তবতা অন্যান্য বাস সার্ভিসের ভাড়ার তুলনায় চক্রাকার বাসের ভাড়া কম। এই চক্রাকার বাস সার্ভিসের সর্বনিম্ন ভাড়া হবে ১০ টাকা। এক স্টপেজ থেকে অন্য স্টপেজে যাওয়ার জন্য ১০ টাকা ভাড়া দিতে হবে। এছাড়া দূরত্ব ভেদে ২০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ভাড়া ৩০ টাকা। এই ৩০ টাকা দিয়ে আমাদের নাগরিকরা চক্রাকার বাস সার্ভিসের সেবা নিতে পারবে। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এই বাসে সর্বনিম্ন মূল্যে সর্বোচ্চ সেবা নাগরিকদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছি। নাগরিকদের উদ্দেশে মেয়র বলেন, সরকারী সম্পত্তি মানেই এই সম্পত্তি আপনার কাজেই এর রক্ষণাবেক্ষণও আপনার দায়িত্ব।
অনুষ্ঠানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া বলেন, চক্রাকার বাস সার্ভিস কোন কোন পথে চলবে তার কর্মকৌশল নির্ধারণ করা হয়েছে। ঢাকা মহানগরীর শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠায় এটি একটি উদ্যোগ। পর্যায়ক্রমে ঢাকায় আরও ৩টি চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করা হবে। রাজধানীতে এমন স্বাচ্ছন্দ্যের বাস সার্ভিস দেয়া গেলে ছোট ছোট ব্যক্তিগত গাড়ি অনেক কমে যাবে। এক সময় রাস্তার উল্টো পাশে গাড়ি চলত স্টিকার লাগিয়ে, বিশেষ হর্ন ও লাইট জ্বালিয়ে গাড়ি ইচ্ছামতো চলাচল করত। আমরা এসব প্রতিরোধ করতে পারিনি। কিন্তু সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা এখন থেকে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনতে বিশেষভাবে কাজ করছি। গত এক সপ্তাহ যাবত এ নিয়ে ব্যাপকভাবে কাজ শুরু করেছি। আশা করি আগামী পনেরো দিনের মধ্যেই রাজধানীর গণপরিবহনে দৃশ্যমান শৃঙ্খলা আনা সম্ভব হবে। এছাড়া রাজধানীতে যে কেউ যানজট সৃষ্টির উদ্দেশে বা বিশৃঙ্খলা করতে আড়াআড়িভাবে রাস্তায় বাস রাখবে তাদের বিরুদ্ধেই ফৌজদারি আইনে মামলা করা হবে। এছাড়া কোন পথচারী যদি আইনের ব্যত্যয় ঘটায় ও দুর্ঘটনার কারণ হয়ে দাঁড়ায় তাহলে তার বিরুদ্ধেও ফৌজদারি আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনুষ্ঠানে বিআরটিসি চেয়ারম্যান মোঃ ফরিদ আহমদ ভুঁইয়া বলেন, এত দিন বাস স্বল্পতার কারণে আমরা ঠিকমতো সেবা দিতে পারছিলাম না। এরই মধ্যে আমাদের বিআরটিসির বহরে বেশ কিছু বাস এসেছে। আগামী জুনের মধ্যে ৬০০টি বাস আমাদের বহরে যুক্ত হবে। ধানমণ্ডি-আজিমপুর এই চক্রাকার বাস সার্ভিস সফল হলে এই মডেল পুরো মহানগরীতে ছড়িয়ে দেয়া হবে। এর মাধ্যমে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।
উদ্বোধনকালে সময় রাস্তায় ফুল দিয়ে সজ্জিত নতুন ১০টি বাস দাঁড় করিয়ে রাখতে দেখা যায়। সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার থেকে এসব বাস যাত্রী পরিবহনের জন্য ব্যবসায়িক ভিত্তিতে পরিচালনার কাজ শুরু করবে। এই রুটে মোট ৩৬টি স্টপেজে এসব বাস থামবে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি), বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) সহযোগিতায় বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন (বিআরটিসি) এই বিশেষ বাস সার্ভিস চালু করেছে।
বাসে এক স্টপেজ থেকে অন্য স্টপেজে যেতে সর্বনিম্ন ১০ টাকা ভাড়া প্রদান করতে হবে। অপরদিকে প্রথম স্টপেজ থেকে সর্বশেষ স্টপেজে যেতে ৩০ টাকা ভাড়া প্রদান করতে হবে। তবে এ বাসে চড়তে যে কেউ র‌্যাপিড পাস ব্যবহার করতে পারবেন সেই সুবিধা রাখা হয়েছে। আধুনিক সুবিধাযুক্ত আরামদায়ক আসনের এসিযুক্ত ৫২ আসন ও ৪১ আসনের দুই আকৃতির বাস নামানো হয়েছে। এই বাসগুলোতে যুদ্ধাহত ও খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের সম্পূর্ণ বিনামূল্যে চলাচলের সুযোগ রাখা হয়েছে। এছাড়া নারী ও শিশু, প্রতিবন্ধীসহ বৃদ্ধদের জন্য সংরক্ষিত আসন রাখা হবে। জানা গেছে, পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম অবস্থায় বিআরটিসির ২০-২৫টি বাস চালু থাকবে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয়তা দেখা দিলে বাসের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়ানো হবে।
বিআরটিসি নির্ধারিত ভাড়ায় বাসগুলো চলবে। দূরত্ব অনুযায়ী ভাড়া ১০, ২০ ও ৩০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। সম্পূর্ণ টিকেট পদ্ধতিতে এসব বাস পরিচালিত হবে। প্রতি পাঁচ মিনিট পর পর নির্দিষ্ট কাউন্টারে বাসগুলো উপস্থিত হয়ে যাত্রী ওঠাবে। যাত্রী যাই থাকুক পাঁচ মিনিটেই বাসটি কাউন্টার থেকে গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। সার্কুলার বাস সার্ভিসগুলো আজিমপুর হয়ে নিউমার্কেট-সাইন্স ল্যাব-ধানমণ্ডি ২নং রোড-সাত মসজিদ রোড-ধানমণ্ডি ২৭-সোবহানবাগ-রাসেল স্কয়ার-কলাবাগান-ধানমণ্ডি ৬নং রোড-৩নং রোড-সাইন্সল্যাব-নিউমার্কেট-আজিমপুর-পলাশী-নীলক্ষেত, কাঁটাবন-বাটাক্রসিং সাইন্সল্যাব-ধানম-ি ২নং রোড হয়ে সাত মসজিদ রোডে চলাচল করবে। অন্যদিকে সোবহানবাগ হয়ে রাসেল স্কয়ার দিয়ে কলাবাগান-ধানমণ্ডি ৬নং রোড ক্রসিং- ৩নং রোড ক্রসিং-সাইন্সল্যাব-বাটাক্রসিং-কাঁটাবন-নীলক্ষেত-পলাশী-আজিমপুর-নিউমার্কেট-সাইন্সল্যাব-৩নং রোড-৬নং রোড ক্রসিং-কলাবাগান-সোবহানবাগ-ধানমণ্ডি ২৭নং রোড পূর্ব মাথা-সাত মসজিদ রোড-বিজিবি-ধানমণ্ডি ২নং রোড-৩নং রোড ইউটার্ন-সাইন্সল্যাব-বাটা ক্রসিং-কাঁটাবন-নীলক্ষেত-পলাশী-আজিমপুর-নিউমার্কেট রুটে চলাচল করবে।
সার্কুলার বাসের জন্য মোট ৩৬টি স্টপেজ থাকবে। বাসগুলো আপ এবং ডাউনে যেসব জায়গায় স্টপেজ থাকবে তাতে দেখা গেছে, কাঁটাবন-নীলক্ষেত রাস্তার এলইডি সাইনের সামনে ও বিপরীত পাশে স্টপেজ রয়েছে। এছাড়া নীলক্ষেত-পলাশীতে স্টপেজ থাকবে। মিরপুর রোডের নিউমার্কেট-সাইন্সল্যাবগামী বাস থামবে নিউমার্কেটে। অন্যদিকে সাইন্সল্যাব হয়ে নিউমার্কেট যে বাসটি যাবে সেটা থামবে বলাকা সিনেমা হলের সামনে। ঢাকা কলেজ-সাইন্সল্যাব রোডে যে বাসটি চলবে সেটি থামবে টিসার্চ ট্রেনিং কলেজের সামনে। এছাড়া সাইন্সল্যাব-ঢাকা কলেজগামী বাস থামবে জনতা ব্যাংকের সামনে।
বাস স্টপেজ থাকছে পপুলার মেডিক্যালের পশ্চিমে, সিটি কলেজের পশ্চিমে, ব্যাংক এশিয়ার সামনে, সীমান্ত ব্যাংক যাত্রী ছাউনী, ইউল্যাবের সামনে, মেডিনোভার সামনে, ফেয়ারী প্লাজা, আলমাসের সামনে, শংকর বাসস্ট্যান্ড, ৫২নং বাসার সামনে, কবি নজরুল ইনস্টিটিউট ইন্টারসেকশন, সোবহানবাগ দ্বীন মোহাম্মদ হাসপাতালের সামনে, প্রিন্স প্লাজা ও হোসেন প্লাজার সামনে, কলাবাগান মাঠের বিপরীতে, কলাবাগান মাঠের পাশে, ধানম-ি ৮নং রোড মাঠের বিপরীতে-ল্যাবএইডের সামনে, ল্যাবএইডের বিপরীতে, সাইন্সল্যাব গেটের সামনে, আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের সামনে, পলাশী মোড় এবং আজিমপুর মোড়।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ