সর্বশেষ :

লালমনিরহাটে চ্যানেল আইয়ের ২১ বছরে পদার্পণে বর্ণাঢ্য উৎসব

নুরনবী সরকার, লালমনিরহাট ০৯:৩০, ২ অক্টোবর ২০১৯

‘হৃদয়ে বাংলাদেশ’কে ধারণ করে লালমনিরহাটে বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে “চ্যানেল আই” এর ২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে।
মঙ্গলবার বিকালে লালমনিরহাটের বত্রিশ হাজারী উচ্চ বিদ্যালয়ের হল রুমে কেক কাটা ও আলোচনা সভার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়। এর আগে বত্রিশ হাজারী উচ্চ বিদ্যালয়ে থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

লালমনিরহাট চ্যানেল আইয়ের দর্শক ফোরামের সভাপতি অধ্যক্ষ রবিউল ইসলাম মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপস্থিত ছিলেন লালমনিরহাট জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাড. মতিয়ার রহমান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য এ্যাড সফুরা বেগম রুমি, চ্যালেন আইয়ের লালমনিরহাট প্রতিনিধি মিজানুর রহমান মিজু, লালমনিরহাটের বত্রিশ হাজারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহছেনা বেগম মিনা, সিনিয়র সাংবাদিক বকুল রায়, ডিবিসি নিউজের লালমনিরহাট প্রতিনিধি মাজেদ মাসুদ, প্রথম খবর লালমনিরহাট প্রতিনিধি আসাদুল ইসলাম সবুজ, এওয়ান নিউজের লালমনিরহাট প্রতিনিধি আজিজুল ইসলাম বারীসহ জেলায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, দর্শকের কাছে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে চ্যানেল আই এখন বাংলাদেশের শীর্ষ চ্যানেল। বাংলাদেশে যে কয়টি বেসরকারী স্যাটেলাইন চ্যানেল রয়েছে তার মধ্যে চ্যানেল আই মানুষের অন্তরে জায়গা করে নিয়েছে। আর বাংলাদেশের কৃষি ক্ষেত্রে সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে চ্যানেল আই দেশের কল্যাণে নিবেদিত ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। শুরু থেকেই পেশাদারিত্বের জন্য চ্যানেল আই-এর একটি সুখ্যাতি ছিল, যেটা সময়ের সাথে আরো শক্তিশালী হয়েছে। তাই চ্যানেল আই-এর দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণ এবং পাহাড়ের ঘটে যাওয়া ঘটনাবহুল ও পাহাড়ের আনাচে কানাচে শোষিত মানুষের সংবেদনশীলতা কথা বেশী বেশী সম্প্রচার করে মানুষের মন জয় করে নেবে এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন বক্তারা।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ