সর্বশেষ :
আন্দোলনের ৪র্থ দিন

সান্তাহারে আজও ট্রেন অবরোধ

আতিকুর হাসান সজীব/ সাইফ হাসান খান ০৯:৩০, ২০ মে ২০১৯

পঞ্চগড় থেকে ঢাকাগামী নতুন  আন্তঃনগর নতুন হিমালয় এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন সান্তাহারের সর্বস্তরের মানুষ। ৫ দিনের কর্মসূচির মধ্যে সোমবার (২০ মে) ঢাকাগামী ও ঢাকা থেকে আগত সকল ট্রেনকে অবরোধ করে রাখা হয় ঘণ্টার পর ঘণ্টা। ট্রেনের যাত্রা বিরতি বাস্তবায়ন কমিটির আন্দোলনের কর্মসূচির মধ্যে এদিন ঢাকাগামী পঞ্চগড় থেকে আন্তঃনগর দ্রুতযান ট্রেন সান্তাহার জংশন স্টেশনে এসে পৌঁছলে অবরোধকারীরা ট্রেনটি প্রায় ১ ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে। এসময় ট্রেনটির ভিতরে থাকা সাধারন যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয়।

পশ্চিম বগুড়ার বৃহত্তম রেলওয়ে জংশন সান্তাহার রেলওয়ে জংশন। প্রতিদিন ৫ টি জেলার লোক এই জংশন ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছুটে চলেছে। সান্তাহার রেলওয়ে জংশন ব্রিটিশ আমলে নির্মিত একটি ঐতিহ্য বাহি জংশন।ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবিতে ট্রেন অবরোধের কারনে অচল উত্তরবঙ্গের সকল জেলা।   সকল ট্রেনের যাত্রাবিরতি আছে এই স্টেশনে।
যাত্রা বিরতি বাস্তবায়ন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক  সাজেদুল ইসলাম চম্পা বলেন, এ দাবি বাস্তবায়ন করা না হলে সান্তাহার জংশন স্টেশনের ওপর দিয়ে কোন ট্রেন চলতে দেওয়া হবে না। এই স্টেশনটি ১৫০শ বছরের পুরনো একটি ঐতিহ্যবাহী স্টেশন। এই স্টেশনে উত্তরবঙ্গে চলাচলরত সকল ট্রেনের যাত্রা বিরতি আছে। কিন্তু রেলমন্ত্রী নতুন পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতি অন্যান্য স্টেশনে দিলেও সান্তাহারে যাত্রা বিরতি দেওয়া হয় নাই। যে যাত্রা বিরতি ছিল এই অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষের প্রাণের দাবি কিন্তু রেলমন্ত্রী সেই দাবি ও অধিকারকে খর্ব করেছে। আমাদের এই দাবি না মানা পর্যন্ত আমরা রেলকে অচল করে দিবো।
আগামী ২৫ মে থেকে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি পঞ্চগড় ঢাকার মধ্যে চলাচল করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ট্রেনটির উদ্বোধন করবেন।

পঞ্চগড় থেকে ট্রেনটি যাত্রা করে ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর ও পার্বতীপুর যাত্রাবিরতি দিয়ে ঢাকায় পৌঁছাবে।

নওগাঁ, বগুড়া ও জয়পুরহাট এই জেলার মোহনায় অবস্থিত গুরুত্বপূর্ণ জংশন স্টেশন হওয়া শর্তে সান্তাহার জংশন স্টেশনে যাত্রা বিরতি না দেয়ায় পঞ্চগড় ট্রেন যাত্রা বিরতি বাস্তবায়ন কমিটি প্রায় ৫ দিন ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছে। তাদের দাবি পূরণ করা না হলে আগামীতে আরো কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি প্রদান করেন কমিটির সদস্য বৃন্দরা।

অন্যান্যদের উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শাহিনুর রহমান মন্টি, সান্তাহার পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল কাশেম, সাবেক কাউন্সিলর আসলাম সিকদার,যুবদল নেতা স্বপন, শ্রমিকলীগ নেতা মুক্তারুজ্জামান মুক্তা, মাওলানা খাইরুল ইসলাম, তুহিন, টারজান, মেরাজুল প্রমূখ।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ