সর্বশেষ :

”সান্তাহার জংশন” ষ্টেশনের পাশে লাল সাদায় ‘মানবতার দেয়াল’

পাপিয়া সুলতানা ১০:১৩, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯

বগুড়া জেলাধীন সান্তাহার রেলওয়ে জংশন ষ্টেশনের ১নং প্লাটফরমের দক্ষিন-পশ্চিম পাশে অবস্থিত ষ্টেশন জামে মসজিদের দিকে যাবার গেটের পাশের দেয়ালের গায়ে ঝুলছে পুরনো পোশাক। তার উপরে লাল সাদায় লেখা ‘মানবতার দেয়াল’। পাশে একটি ফেষ্টুনে আরও লেখা আছে আপনার অপ্রয়োজনীয় জিনিসটি এখানে রেখে যান এবং প্রয়োজনীয় জিনিসটি নিয়ে যান।’
স্থানীয় EAS Foundation- এর  উদ্যোগে তৈরি হয়েছে এই মানবতার দেয়াল। যেখানে সম্পর্ক থাকবে ধনী-গরিব সবার।
সংগঠনটির নির্বাহী প্রধান আবু তাহের মো: শামসুজ্জামান বলেন, সান্তাহার একটি রেলওয়ে জংশন। এখানে বিভিন্ন ধরনের লোকজনের আনাগোনা হয় নিয়মিত। এ এলাকাসহ আশে-পাশে নিম্নবিত্ত, অসহায়-গরিব লোকের বসবাস। পাশাপাশি রয়েছে অনেক ‍উচ্চ মধ্যবিত্তসহ  বিত্তবান লোকের বসবাস। যাদের রয়েছে নামীদামি অনেক পোশাকাদি। কিন্তু অসহায়, নিম্নবিত্তরা চাইলেই পরিবারের চাহিদা অনুযায়ী পোশাক কিনতে পারেন না। আবার কেউ সরাসরি তাদের কিছু দিতে চাইলেও লজ্জাবোধ করেন। তাই অসহায়দের হাতে প্রয়োজনীয় পোশাকগুলো তুলে দিতে এই মানবতার দেয়াল। এখানে যে কেউ চাইলে তার অপ্রয়োজনীয় পোশাকসহ যেকোন জিনিষ রেখে যাবেন আবার কারও প্রয়োজন হলে সে জিনিষটি নিয়ে যাবেন।
সান্তাহার রেল জংশন ষ্টেশনের পাশে এমন উদ্যোগ বেশ সাড়া ফেলেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসীসহ ষ্টেশনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা কর্মচারীগন।

এলাকার তরুন রুবেল, বাপ্পি, বাদল, নিষান, রনি, বিদ্যুত, রাজিব বলেন, ইদ্রিস চাচার ব্যক্তিগত উদ্যোগে এবং EAS Foundation- এর সহযোগীতায় এ মানবতার দেয়ালটি তৈরী করা হয়েছে। আমরা বয়সে তরুন, সবাই  নিজেদের অবস্থান ও সামর্থ অনুযায়ী সমাজের জন্য, এলাকার জন্য, দেশের জন্য কিছু করার আগ্রহ আছে কিন্তু দিকনির্দশনার জন্য করতে পারিনা। আজ এই কাজের মধ্যে অংশ নিতে পেরে খুব ভালো লাগছে।

এই মানবতার দেয়ালের জন্য প্রতিদিনই বেশ কিছু পোশাক আসছে, আবার যার প্রয়োজন অনেকে নিয়েও যাচ্ছেন।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ