সর্বশেষ :

১২এপ্রিল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ-চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি

নিজস্ব প্রতিবেদক ০৯:৩৯, ১৪ মার্চ ২০১৯

দেশে বিদেশি ছবি আমদানির ক্ষেত্রে সহজ নীতিমালা ও দেশীয় ছবি নির্মাণ বাড়ানোর আহবান জানিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি। সরকার এ  বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত ও উদ্যোগ না নিলে আগামী ১২ এপ্রিল থেকে দেশের সব (স্টার সিনেপ্লেক্স ও ব্লকবাস্টার সিনেমাস  এ ঘোষণার  আওতায় নয় )  প্রেক্ষাগৃহ বন্ধের ঘোষণা করেন। বুধবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দিয়েছে প্রদর্শক সমিতির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্রদর্শক সমিতির উপদেষ্টা সুদিপ্ত কুমার দাস, মিয়া আলাউদ্দিন, সভাপতি ইফতেখার নওশাদ,  লায়ন্স সিনেমা হলের (অধুনালুপ্ত) কর্ণধার মির্জা আব্দুল খালেক, নিউ গুলশান সিনেমার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমির হামজা,  আওলাদ হোসেন উজ্জ্বল, আলমগীর শিকদার লোটন, আর এম ইউনুস রুবেলসহ অর্ধশতাধিক হল মালিক।
উপদেষ্টা সুদীপ্ত দাস ও মিয়া আলাউদ্দিন জানান, দুরাবস্থা কাটাতে দায়িত্বশীলদের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করা হয়েছে। কিন্তু  সুনির্দিষ্টভাবে সিনেমা হলগুলোকে বাঁচানোর কিংবা দেশের ছবির উৎপাদন বাড়ানো এবং উপমহাদেশের ছবি আমদানির বাধাগুলো অপসারণে কোনও কার্যকর নির্দেশ পাওয়া যায়নি।
চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ইফতেখার নওশাদ বলেন, সিনেমা হল টিকিয়ে রাখার জন্য পর্যাপ্ত কনটেন্ট (সিনেমা) নেই। দীর্ঘদিন ধরে লোকসান গুনতে গুনতে হলের মালিকরা দিশেহারা। সেজন্য ১২ এপ্রিল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব সিনেমা হল সমিতি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়ছে।
এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সিনেমা হল ১২৩৫ থেমে ১৭৪-এ নেমে এসেছে। দেশের ছবি নির্মাণের সংখ্যা বছরে ৩৫-৪০-এ এসে ঠেকেছে। আমদানির ছবি এলে পরিচালক-শিল্পীদের রোজগার কমে যাবে এই অজুহাত দেয়া হচ্ছে। সিনেমা হলের সঙ্গে ৫০ হাজার শ্রমিক জড়িত বেকার হয়ে আছে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে হল ভাড়া, বিদ্যুৎ বিল। নতুন বিনিয়োগ ও মেধা সম্পন্ন নির্মাতা আসছে না। এর সমাধান কী? যখন থেকে ছবি আমদানি করা হচ্ছে তখন থেকে প্রদর্শক সমিতিকে আশ্বাস দেয়া হচ্ছে, ভালো নির্মাতা আসছেন, দেশের চলচ্চিত্র ঘুরে দাঁড়াবে। তার উদাহরণ এখন সিনেমা হল সংখ্যা ১৭৪ আর ছবি মুক্তির সংখ্যা বছর ৩৫। এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য বহু দিন প্রদর্শক সমিতি চুপ ছিল, কিন্তু আর নয়।
এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য আগামী ১২ এপ্রিল থেকে সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সরকার সমস্যা সমাধান না করা পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে বলে জানায় প্রদর্শক সমিতি।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ